• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২৯ এপ্রিল, ২০২৩

হাতিয়ায় আগুনে পুড়ে ছাই ২০ দোকান

নোয়াখালী হাতিয়ায় আগুনে পুড়ে গেছে ২০টি দোকান। এতে প্রায় ৩ কোটি টাকার ক্ষতির আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) ভোরে উপজেলার চরকিং ভৈরব বাজারে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ব্যবসায়ীরা জানান, রাত তিনটার সময় এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। একটি চায়ের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। দোকানের মধ্যে থাকা গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে মুহূর্তে আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। ব্যবসায়ীদের চিৎকারে লোকজন এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

বাজারের ব্যবসায়ী কবির হোসেন জানান, আগুনে পুড়ে যাওয়া ২০টি দোকানের মধ্যে তার মালিকানা একটি টিনের দোকান রয়েছে। তার দোকানে প্রায় ৫০ লাখ টাকার মালামাল ছিল। আগুন রাতে লাগার কারণে দোকানের কোনো মালামাল বের করতে পারেননি।

চরকিং ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবু তাহের জানান, আগুনে ২০টি দোকান একেবারে ছাই হয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে এর ক্ষয়ক্ষতি প্রায় ৩ কোটি টাকার মতো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হাতিয়া ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন চৌধুরী জানান, অগ্নিকাণ্ডের অনেক পরে তাদের খবর দেওয়া হয়েছে। তাও ৯৯৯–এর মাধ্যমে তাদের খবর দেওয়া হয়। এলাকাটি উপজেলা সদর থেকে অনেক দূরে হওয়ায় যেতে সময় লেগেছে। ফায়ার সার্ভিস যাওয়ার অনেক আগে পুড়ে ছাই হয়ে যায় অধিকাংশ দোকান। বিদ্যুতের শর্ট-সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চরকিং ইউপি চেয়ারম্যান নাইম উদ্দিন বলেন, আগুনে বাজারের ব্যবসায়ীরা একে বারে নিঃস্ব হয়ে গেছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। সরকারিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা করা হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন