• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৪ মে, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মে, ২০২৩

পিসিবির প্রস্তাব মেনে এশিয়া কাপ খেলবে ভারত!

এ যেন পূর্ণদৈর্ঘ্য ধারবাহিক নাটকের শেষ পর্ব দেখতে চলেছেন দর্শকরা! ভারত-পাকিস্তানের একের পর এক প্রস্তাবনায় চলতি বছরের এশিয়া কাপ শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল। পাকিস্তানের মাটিতে ভারতের খেলতে অনীহার কারণেই সেই আলোচনার রেশ এতদূর গড়িয়েছে। তাদের রাজি করাতে ভারতের ম্যাচগুলো নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আয়োজনের হাইব্রিড প্রস্তাব দিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু তাতেও ভারতীয় বোর্ড বিসিসিআইয়ের সিদ্ধান্তের বরফ গলেনি। তবে এবার কিছুটা আশার বাণী শুনিয়েছে রোহিত-কোহলিদের বোর্ড। এক শর্তে তারা পাকিস্তানের হাইব্রিড প্রস্তাব মানতে রাজি হয়েছে!

ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানের জিও সুপার টিভি। এক প্রতিবেদনে সংবাদমাধ্যমটি বলছে, একটি শর্তে পাকিস্তানের প্রস্তাবিত হাইব্রিড মডেল মেনে এশিয়া কাপে খেলতে রাজি হয়েছে ভারত। তবে আগামী ২৭ মে বিসিসিআইয়ের সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে।

পিসিবির দেওয়া দু’টি হাইব্রিড মডেলের মধ্যে একটি ছিল, ভারতের ম্যাচগুলো নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। অন্যসব ম্যাচগুলো পাকিস্তানের মাটিতে হবে। অন্য বিকল্প ছিলো, গ্রুপ পর্বের প্রথম চারটি ম্যাচ পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় পর্বে ভারতের ম্যাচসহ ফাইনাল হবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। দ্বিতীয় প্রস্তাব অনুসারে, লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বের চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। পরের ম্যাচগুলো হবে দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত। এক্ষেত্রে শারজাহ এবং আবুধাবির চেয়ে দুবাইতে টিকিট বেশি বিক্রির সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখেছে পিসিবি।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমটি বলছে, ‌‘পাকিস্তানের প্রস্তাবে এশিয়ার অন্য দেশগুলোর সমর্থন থাকায়, বিসিসিআইও তাদের সিদ্ধান্তে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে একটি শর্ত জুড়ে দিয়েছে তারা। সেটি হচ্ছে- ভারতের মাটিতে হতে যাওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অংশ নেওয়ার বিষয়ে লিখিত নিশ্চয়তা চায় বিসিসিআই।’

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপের জন্য সময় বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এরপর অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। কিন্তু এশিয়া কাপে ভারত না খেললে কিংবা কোনো কারণে টুর্নামেন্টটি বাতিল হলে, বিশ্বকাপে না যাওয়ার হুমকি দিয়ে আসছিল পিসিবি প্রধান নাজাম শেঠী। তাদের সেই সিদ্ধান্ত বদলাতে এবার ভারতও কিছুটা সুর নরম করতে যাচ্ছে!

আরও পড়ুন