• ঢাকা
  • বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

চাটখিলে ইন্টারন্যাশনাল ইউথ পিস ক্যাম্পের উদ্বোধন

উপজেলা প্রতিনিধি, চাটখিল : শান্তির দূত,  অহিংস নীতির প্রবর্তক ও ভারতের জাতীয়  নেতা  মহাত্মা  গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত নোয়াখালীর জয়াগ গান্ধী আশ্রম ট্রাস্ট ক্যাম্পাসে তিনদিন ব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল ইউথ পিস ক্যাম্পের উদ্বোধন করা হয়েছে।

শনিবার ৩০ সেপ্টেম্বর দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ক্যাস্পের উদ্ভোধন করেন নোয়াখালী -১ আসনের সংসদ সদস্য এইচএম ইব্রাহীম।

এ উপলক্ষ্যে  এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অবঃ) জীবন কানাই দাসের সভাপতিত্বে ও সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন এবং গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রাহা নবকুমারের যৌথ  সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন  আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সরওয়ার,  নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ নিলুফার ইয়াসমিন,  আইন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ন সচিব  শেখ হুমায়ুন কবির, ভারতের মহারাষ্ট্র প্রদেশের স্নেহালয়া স্ংস্থায় নির্বাহী পরিচালক ডঃ গিরিশ কুলকার্নি, নোয়াখালী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা -আইসিটি) অজিত দেব, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন -অর্থ) বিজয়া সেন, নোয়াখালী প্রেস ক্লাব সভাপাতি বাখতিয়ার শিকদার পুলিশের চাটখিল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নিত্যানন্দ দাস।

আন্তর্জাতিক শান্তি সম্প্রীতি বজায় রাখা এবং মহাত্মা গান্ধীর ১৫৫তম জন্ম জয়ন্তী এবং গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন এ ক্যাম্পের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

এ ক্যাস্পে অংশ গ্রহনের জন্য ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে ৬২ জন সাইক্লিষ্ট মহারাষ্ট্র প্রদেশের আহাম্মেদ নগর থেকে যাত্রা শুরু করে ৪হাজার ২০০ কিমি পথ অতিক্রম করে শান্তি -সম্প্রীতির বানী প্রচার করতে ২২ সেপ্টেম্বর দলটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সোনা মসজিদ স্থল বন্দর দিয়ে তারা  বাংলাদেশে প্রবেশ করে এবং বৃহস্পতিবার বিকালে তারা নোয়াখালীর গান্ধী আশ্রমে প্রবেশ করেন।

এ ক্যাস্পে যোগ দিতে সার্কভূক্ত দেশ গুলো ছাড়াও কেনিয়া, সুইডেন জার্মানি যুক্তরাজ্য ও যুক্ত রাষ্ট্র থেকে ও ৩৫০ জন যুব প্রতিনিধি ও প্রবীন গান্ধী অনুসারী   অংশ গ্রহন করেছেন।

তিন দিন ব্যাপী এ পিস ক্যাস্পে  বিভিন্ন অধিবেশনে মহাত্মা গান্ধী ও বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের অহিংস নীতি ও শান্তি সম্প্রীতির দর্শন এবং বর্তমান বিশ্বে এর প্রাসঙ্গিকতা সহ জলবায়ু পরিবর্তন, সন্ত্রাসবাদ, মানবাধিকার ইত্যাদি বিষয়ের ওপর দেশ বিদেশের প্রখ্যাত ব্যক্তিবর্গ আলোচনা করবেন।এছাড়ও প্রতিদিন সন্ধ্যায় দেশি বিদেশি শিল্পগোষ্ঠীর অংশ গ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে। ক্যাম্পে অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব প্রাপ্ত মন্ত্রী, ভারতীয় হাইকমিশনার, সংসদসদস্য সহ বিভিন্ন স্তরের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকবেন।

আরও পড়ুন