• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১৯ নভেম্বর, ২০২৩

মাইজদীতে বিএনপির ঝটিকা মিছিল, ককটেল বিস্ফোরণ-অগ্নিসংযোগ

উপজেলা প্রতিনিধি, সদর : আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের সমর্থনে নোয়াখালীতে ঝটিকা মিছিল করেছে নেতাকর্মীরা। এসময় তারা কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় এবং সড়কে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়। রোববার (১৮ নভেম্বর) ভোর সাড়ে ৬টার দিকে জেলা শহরের বিশ্বনাথ এলাকা থেকে মিছিলটি বের হয়।

জানা গেছে, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসান মো. নোমান ও জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে জেলা শহরের বিশ্বনাথ এলাকায় রোববার ভোরে একটি ঝটিকা মিছিল বের করে জেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এসময় ওই এলাকায় কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টাও করা হয় এবং পেট্রোল ঢেলে সড়কে আগুন দেওয়া হয়। অবশ্য খুব অল্প সময়ের ব্যবধানে মিছিলটি কয়েকশ গজ গিয়ে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় এবং দলটির নেতাকর্মীরা স্থান ত্যাগ করে চলে যান।

জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসান মো. নোমান বলেন, এই তফসিল ঘোষণা অবৈধ। আমরা ঘৃণা ভরে প্রত্যাখ্যান করছি। আমরা শান্তিপূর্ণ হরতাল পালন করছি। তারপরও সাধারণ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এদিকে হরতালে ভোর থেকেই নগরীর বিভিন্নস্থানে রিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ হালকা দু’একটি যানবাহন চলাচল করতে দেখা যায়। তবে বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার কোনো যানবাহন ছেড়ে যায়নি। কিন্তু বন্ধ রয়েছে দোকানপাট।

অন্যদিকে সবধরণের নাশকতা এড়াতে জেলাজুড়ে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ ও র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ভোর থেকেই জেলার প্রধান সড়কগুলোতে গাড়িযোগে টহল দিচ্ছেন তারা। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতেও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সুধারাম মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জায়েদুল হক রনি বলেন, পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে গলি থেকে একটা মিছিল বের হয়। তারপর তারা পিকেটিং করার চেষ্টা করে। পুলিশ যাওয়ার পর পিকেটাররা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন

  • নোয়াখালী সদর এর আরও খবর