• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর, ২০২৩

নোবিপ্রবিতে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজন সভা

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি : শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অ্যালামনাই, অভিভাবক ও গণমাধ্যমকর্মীদের অংশগ্রহণে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ‘সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজন সভা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার ১৩ ডিসেম্বর ২০২৩ বিশ^বিদ্যালয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী ইদ্রিস অডিটোরিয়াম ভবনের আইকিউএসি সেমিনার কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এ সভার আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ দিদার-উল-আলম। আইকিউএসি পরিচালক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজির (আইআইটি) পরিচালক ও এপিএ টিমলিডার অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেলিম হোসেন ও রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ফার্মেসি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ফাহদ হুসাইন। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন ও নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. এস. এম. মাহবুবুর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক ও অর্থনীত বিভাগের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ মুহাইমিনুল ইসলাম সেলিম।
অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, বিশ^বিদ্যালয়ের উন্নয়ন ও শিক্ষার্থীদের সেবার মান বাড়ানোই আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। তবে আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতাও রয়েছে। অপেক্ষাকৃত নতুন বিশ^বিদ্যালয় হওয়ায় নোবিপ্রবির বাজেটের আকারও তুলনামূলক অনেক ছোট। এরমধ্যে সরকারের কৃচ্ছ্রসাধন নীতির কারণে অনেক উদ্যোগ নিয়েও তা বাস্তবায়নে ধীর হয়।

উপাচার্য আরও বলেন, আমরা সকল অংশীজনদের সঙ্গে নিয়ে বিশ^বিদ্যালয় পরিচালনা করতে চাই। কর্তৃপক্ষ হিসেবে আমরা শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও অন্যান্য অংশীজনদের কথা শুনতে চাই। আমরাও তাদের কিছু জানাতে চাই। এ লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এ সভা আয়োজন করা হয়েছে। আশা করছি, এ সভার মাধ্যমে উঠে আসা বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ বিশ^বিদ্যালয়ের নীতি প্রণয়ন ও কর্মপরিকল্পনাকে আরো সমৃদ্ধ ও ফলদায়ক করে তুলবে। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন, শিক্ষার্থীদের সেবার মান বাড়ানোর বিষয়ে নোবিপ্রবি কর্তৃপক্ষ বদ্ধপরিকর।

এক্ষেত্রে অংশীজনদের বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আমাদের গৃহীত পদক্ষেপ ও কার্যক্রম বিষয়ে মতামত জানা জরুরি। আজকের এ সভার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা একাডেমিক ও নন-একাডেমিক বিষয়গুলো নিয়ে তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরার সুযোগ পাবেন। অন্যান্য অংশীজনরাও তাদের মতামত ব্যক্ত করবেন। এ ধরনের মিথষ্ক্রিয়ার মাধ্যমে আমাদের প্রিয় বিশ^বিদ্যালয়টি সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ ও বহিঃস্থ অংশীজনদের নিয়ে আজকের এ আয়োজন অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আমরা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে যেসব সেবা প্রদান করে থাকি, সে বিষয়ে অংশীজনদের প্রতিক্রিয়া জানতেই আজকের এ সভা। এ ধরনের অন্তর্ভুক্তিমূলক উদ্যোগের মাধ্যমে বিশ^বিদ্যালয়ের সেবার মান বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

সভায় অংশ নিয়ে বিভিন্ন বিভাগের শ্রেণি প্রতিনিধিরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠদান, পরীক্ষা পদ্ধতি, অবকাঠামো ও যানবাহন সুবিধা বিষয়ে বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেন। অভিভাবক, প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যমকর্মীরাও বিভিন্ন মতামত তুলে ধরার পাশাপাশি অংশীজনদের নিয়ে এ ধরনের সভার আয়োজন করায় বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান।

আরও পড়ুন

  • ক্যাম্পাস এর আরও খবর