• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৬ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর, ২০২৩

মুক্তিযুদ্ধে শহীদ পুলিশ সুপার আবদুল হাকিম শিক্ষা বৃত্তি প্রদান

উপজেলা প্রতিনিধি, সদর : মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুল হাকিমের বীরত্বগাঁথা নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে জেলা পুলিশ কর্তৃক শহিদ মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাকিম শিক্ষা বৃত্তি প্রবর্তন করা হয়েছে।
পুলিশ কেজি স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিদ্যালয় থেকে বৃত্তিপ্রাপ্ত ৩য় থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ৫০ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে বৃত্তির চেক, ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে জেলা পুলিশ সুপার মো: শহীদুল ইসলাম পিপিএম (বার)।

পুলিশ কেজি স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মো. রহমত উল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে রাখেন পুলিশৎ কেজি স্কুল ও কলেজের কোঅর্ডিনেটর সীমা পরভীন নিশি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) বিজয়া সেন, পুলিশ কেজি স্কুল ও কলেজের এডজুটেন্ট অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মোর্তাহীন বিল্লাহ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম জিএস, শিক্ষাবীদ প্রফেসর কাজী মুহম্মদ রফিক উল্লাহ, মুক্তিযুদ্ধে পুলিশ, গ্রন্থের গবেষক ও নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু নাছের মঞ্জু এবং বৃত্তপ্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থী সারিক হাসিন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) বিজয়া সেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) মো. নাজমুল হাসান রাজিব, সহকারী পুলিশ সুপার (হাতিয়া সার্কেল) মো. আমান উল্যাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানান, ১৯৭১ সালের মার্চে মুক্তিযুদ্ধের শুরুর দিকে নোয়াখালীর তৎকালীন পুলিশ সুপার আবদুল হাকিম মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে অস্ত্রাগারের সব অস্ত্র তুলে দেন। সে অস্ত্র দিয়ে জেলার বিভিন্ন স্থানে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ ও প্রতিরোধ যুদ্ধ পরিচালনা করা হয়। পাক সেনারা বিষয়টি জানার পর পুলিশ সুপার আবদুল হাকিমকে কুমিল্লা সেনানিবাসে তুলে নিয়ে হত্যা করে।

তাঁর বীরত্বথাঁথা নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে জেলা পুলিশের উদ্যোগে এ বছর থেকে প্রবর্তন করা হয় শহিদ মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাকিম শিক্ষা বৃত্তি। এবার জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয থেকে ১৭৮৬ জন ছাত্রছাত্রী এ বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

মুক্তিযুদ্ধে পুলিশ, নোয়াখালী গ্রন্থের গবেষক ও নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু নাছের মঞ্জু বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশ সুপার আবদুল হাকিমের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। তাঁর আত্মদানের কাহিনী নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরার লক্ষ্যে এমন শিক্ষাবৃত্তি সত্যিই তাৎপর্যপূর্ণ।
বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী সারিক হাসিন অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, আমাদের জন্য আজকে আনন্দের দিন। প্রায় দুই হাজার অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে আমরা ৫০ জন বৃত্তি পেয়েছি। যার অনুভূতি প্রকাশ করে শেষ করা যাবে না। আমি আয়োজক ও সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন

  • নোয়াখালী সদর এর আরও খবর