• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর, ২০২৩

নোয়াখালী-২: নৌকার মোরশেদ আলমের গলার কাটা স্বতন্ত্রের আতাউর রহমান ভুইয়া মানিক

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-২ (সেনবাগ-সোনাইমুড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দুই বারের সংসদ সদস্য মোরশেদ আলমের বড় চ্যালেঞ্জ নিজ দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী কাঁচি প্রতিকের আতাউর রহমান ভুইয়া মানিক।

ভোটে বিএনপি-জামায়াতের প্রার্থী অংশ না নেওয়ায় তাদের সমর্থিতদের ভোট নিজেদের করতে প্রার্থীরা চেষ্টা করছেন। এছাড়া অন্য দলগুলোর প্রার্থীরা ভোটের মাঠে থাকলেও আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর সাথে দলের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মূল লড়াই হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। ভোটের দিন যত ঘনিয়ে আসছে ততই বাড়ছে উত্তেজনা।
জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, নোয়াখালী-২ (সেনবাগ-সোনাইমুড়ী) আসনে মোট সাতজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোরশেদ আলম (নৌকা), স্বতন্ত্র মোহা. আতাউর রহমান ভূঁইয়া (কাঁচি), জাসদের নাইমুল আহসান (মশাল), বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ (টেলিভিশন), বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের রবিউল হোসাইন (ছড়ি), জাতীয় পার্টির তালেবুজ্জামান (লাঙ্গল) ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির কাজী সরওয়ার আলম (হাতঘড়ি)। এই আসনে মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১৪৯টি এবং মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬০ হাজার ৪৬৪ জন।

সাইফুল ইসলাম নামের এক চাকরিজীবী বলেন, আমাদের জন্য ভোট গুরুত্বপূর্ণ তবে আমরা ভোট দিতে যাবো। এবারের নির্বাচন অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন। ভোটাররা যেনো নির্বিঘ্নে যেতে পারে সেটা নিশ্চিত করতে হবে।

কাঁচি প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক মিলন হোসেন বলেন, ভোটের জন্য সুষ্ঠু নিরপেক্ষ পরিবেশ জরুরী। আমাদের প্রার্থী যেখানেই যাচ্ছে মানুষ সারা দিচ্ছে। হামলা ভাংচুর নিয়মিত হচ্ছে। যদি এভাবে চলতে থাকে তাহলে মানুষ ভোটকেন্দ্রে আসবে না।

রুবেল হোসেন নামের এক নৌকার সমর্থক বলেন, নৌকা ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। এই উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নৌকার জয়ের বিকল্প নাই। সব প্রার্থী সমান তবে প্রতিহিংসা না করে মানুষকে সচেতন হতে হবে।

জাসদের মনোনীত মশাল প্রতিকের প্রার্থী নইমুল আহসান জুয়েল বলেন, কোনো প্রার্থীই নির্বাচনী আচরণ বিধি মানছেন না। পুরো নির্বাচনে ২৫ লাখ টাকা খরচ করার কথা থাকলেও প্রার্থীরা প্রতিদিনই ২৫ লাখ টাকা খরচ করেন৷ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভয়ানক৷ প্রশাসন যেনো দেখেও দেখছেনা। আমি খুব ভয়ে আছি মানুষ প্রাণ দেয় কিনা এই নির্বাচনের কারণে। আমি খুব শঙ্কায় আছি। ২০ শতাংশের বেশি ভোট হবে কিনা আমার সন্দেহ হচ্ছে।

নিজ প্রার্থীকে বয়কট করে নোয়াখালী-২ (সেনবাগ-সোনাইমুড়ী) আসনের আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী মোরশেদ আলমকে সমর্থন দিয়েছে উপজেলা জাতীয় পার্টির একাংশের সভাপতি হাসান মঞ্জুর। তিনি বলেন, সেনবাগ উপজেলা জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ। আমরা নৌকা প্রতীক প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য কাজ করবো। এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে আমরা নৌকা প্রতীক প্রার্থী মোরশেদ আলমকে বিজয়ী করবো। এখন থেকে জাতীয় পার্টির ইউনিয়ন পর্যায়ের ও উপজেলার সব নেতাকর্মী নৌকার প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা করবে বলে ঘোষণা দেন এই জাপা নেতা।

আরও পড়ুন

  • বিশেষ প্রতিবেদন এর আরও খবর