• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৯ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির গনজাগরণের শিল্প আন্দোলন

উপজেলা প্রতিনিধি, সদর : বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের পূর্ববর্তী ও পরবর্তীতে যেই সকল শিল্প ও সংস্কৃতি চর্চার জাতীয় গণজাগরণ আন্দোলন শুরু করে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ডি.জি. অধ্যাপক লিয়াকত আলী লাকী বাংলাদেশের শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতির পুরনো ঐতিহাসিক বিষয় গুলো পুনরুদ্ধারের প্রচেষ্টা হিসেবে সারাদেশে একযোগে গণজাগরণের শিল্প আন্দোলন ও সাংস্কৃতিক উৎসবের আয়োজন করা হয়।

এই সমস্ত অনুষ্ঠান গুলোর পরিচালনায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, ব্যবস্থাপনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি, জেলা প্রশাসক এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

এরই অংশ হিসেবে জেলার প্রবীণ একটি সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘বাঙালি লোকশিল্প সংস্থা’র প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট সারওয়ার ই-দিন তাঁর সংগঠনের কলাকৌশলগণ পরিবেশন করে ‘রহিম বাদশা রূববান’।

পরিচালনায়, ইন্দ্রজিৎ নন্দি। ব্যবস্থাপনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি এবং সহযোগিতা করেন জেলা প্রশাসক নোয়াখালী। কলাকৌশলী দিয়ে সহযোগিতা করে ‘লক্ষ্মীনারায়ণপুর থিয়েটার নোয়াখালী’।

২৭ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ সন্ধ্যা ৭ টা থেকে নোয়াখালী বিজয় মঞ্চে পরিবেশিত হয় এই বহুল জনপ্রিয় যাত্রাটি। অনুষ্ঠানটি দেখতে সাধারণ মানুষের ভিড় হয়েছিল লক্ষ্যনীয়। নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার ফয়েজ আহমেদ তাঁর আক্রান্ত পরিশ্রম ও পরিকল্পনায় অত্যন্ত সুন্দর উৎসব মুখর পরিবেশনা উপহার হিসেবে উপভোগ করে সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুন