• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১২ জানুয়ারি, ২০২৪

ল্যাবএইড ডায়াগনষ্টিক নোয়াখালী শাখাকে লাখ টাকা জরিমানা, ভুয়া চিকিৎসকের ২ বছর কারাদণ্ড

উপজেলা প্রতিনিধি, বেগমগঞ্জ : বেগমগঞ্জ উপজেলায় হাবিবুর রহমান (৪৭) নামের এক ভুয়া চিকিৎসককে দুই বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকার অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় দায়িত্বে অবহেলার কারণে ল্যাবএইড ডায়াগনষ্টিক নোয়াখালী শাখাকেও এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে চৌমুহনী পৌরসভার আলীপুর এলাকায় ল্যাবএইড ডায়াগনষ্টিক নোয়াখালী শাখায় এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বেগমগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট আসিফ আল জিনাত।

প্রতারক হাবিবুর রহমান রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানার বাওনারা গ্রামের সোহরাব হোসেনের ছেলে। সে নিজেকে নিউরো মেডিসিনের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাকিব আহসান পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছিলো।

জানা গেছে, র‍্যাব-১১ সিপিসি-৩ একটি চৌকস দল দীর্ঘদিন ধরে ভুয়া চিকিৎসক ডা. রাকিব আহসানের উপর নজরদারি করে আসছিলেন। র‍্যাব-১১ এর আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করে। জানতে পারে ডাক্তার না হয়েও রাকিব আহসান নামে একজন ব্যক্তি নিজেকে বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, ঢাকার সহকারী অধ্যাপক ও নিউরো মেডিসেনের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয় দিয়ে নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ থানাধীন ল্যাব এইড ডায়াগনস্টিক এ জনসাধারণের সাথে প্রতারণা পূর্বক রোগী দেখার নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে র‍্যাব-১১ এর সিপিসি-৩ এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বেগমগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট আসিফ আল জিনাত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ভুয়া চিকিৎসক হাবিবুর রহমান নিজেকে এমবিবিএস ও নিউরো মেডিসেনের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয় দিয়ে মেডিল্যাব জেনারেল হাসপাতাল, মানিকগঞ্জ, আলো ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, ঈশ্বরদী, পাবনা, কুয়েত প্রবাসী হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, বরগুনা, ভোলা ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, ভোলা, কমফোর্ট ডায়াগনষ্টিক ল্যাব, বরিশাল সহ দেশের বিভিন্ন সুমানধন্য হাসপাতাল ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে জনসাধারণের সাথে প্রতারণা পূর্বক রোগী দেখার নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এরপর প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ইচ্ছাকৃত ভাবে নিজেকে একজন স্বীকৃত চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দেওয়ার অপরাধে তাকে মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইন- ২০১০ এর ২৮(১) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

বেগমগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট আসিফ আল জিনাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করি। এসময় হাবিবুর রহমান সার্টোফিকেটসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেন নি। তার ভুল চিকিৎসায় ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছিল সাধারণ মানুষ। এজন্য তাকে দুই বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

র‍্যাব-১১ এর সিপিসি-৩ এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাহমুদুল হাসান বলেন, ভুয়া চিকিৎসক প্রতি শুক্রবার ল্যাবএইড ডায়াগনষ্টিক নোয়াখালী শাখায় রোগী দেখতে আসে। এসময় প্রতারণা করে মানুষের অসহায় রোগীর কাছে থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায়। আমরা দীর্ঘদিন ধরে নজরদারি করে আজ তাকে হাতেনাতে ধরতে সক্ষম হয়েছি। ভুয়া চিকিৎসককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুই বছরের কারাদণ্ড আদেশ প্রদানের পর পর র‍্যাবের মাধ্যমে তাকে বেগমগঞ্জ থানায় সোপর্দ করা হয় এবং সন্ধায় জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

আরও পড়ুন

  • বেগমগঞ্জ এর আরও খবর