• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১৮ জানুয়ারি, ২০২৪

দেশে ফিরে বিয়ে করা হলো না মামুনের, যুক্তরাষ্ট্রে স্ট্রোক করে মৃত্যু

উপজেলা প্রতিনিধি, সোনাইমুড়ী : যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ায় যাত্রী নামিয়ে দিয়ে নিউইয়র্কে ফেরার পথে স্ট্রোক করে মো. মামুনুর রশিদ (৩৩) নামের এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে তার মরদেহ দূতাবাসের মাধ্যমে শীগগিরই দেশে পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছেন তার তার পরিবার।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় রাত ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এরপর সহকর্মীরা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহর মো. মামুনুর রশিদ সোনাইমুড়ী উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নের পদিপাড়া গ্রামের হাসমত উল্যাহ হাজী বাড়ির শফি উল্যাহর ছেলে। সে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান।

নিহতের সহকর্মী যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা সোহাগ হোসেন বলেন, মামুন যাত্রী নামিয়ে ফেরার পথে বমি করে। আমরা তাৎক্ষণিক তাকে পাশ্ববর্তী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সামনের আগস্ট মাসে তার কাগজপত্র পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কাগজপত্র পাওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।

নিহতের ছোট ভাই রিয়াদ খান বলেন, আমরা তিন ভাই চার বোনের মধ্যে মামুন ভাই সবার বড়। তিনি ৫ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে থাকে। সে উবারে যাত্রী আনা নেওয়া করতো। বৈধ কাগজপত্র পাওয়ার সাথে সাথে বাড়ি আসার কথা ছিল। আমাদের সব শেষ হয়ে গেলো। মরদেহ আনতে সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।

আমিশাপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সেলিম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে মামুন কফিনবন্দি হয়েছেন। আগামী আগস্ট মাসে বৈধ কাগজপত্র পাওয়ার কথা ছিল। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে তার মরদেহ দেশে আনার জন্য সরকারের সহযোগিতা চেয়েছে পরিবার।

আরও পড়ুন