• ঢাকা
  • বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ২৯ জানুয়ারি, ২০২৪

নোবিপ্রবিতে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল’ বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, নোবিপ্রবি : নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল: নোবিপ্রবি সার্বিক ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন ও অংশীদারিত্ব’ শীর্ষক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (২৮ জানুয়ারী ২০২৪) বিশ্ববিদ্যালয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) সেমিনার কক্ষে এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। আইকিউএসি আয়োজিত প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ দিদার-উল-আলম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নোবিপ্রবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর এবং রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন। নোবিপ্রবি আইকিউএসির পরিচালক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও শিক্ষা বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. বিপ্লব মল্লিক ও উপ-পরিচালক (হিসাব) মোঃ সাখাওয়াত হেসেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ মুহাইমিনুল ইসলাম সেলিম।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ দিদার-উল-আলম বলেন, জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সরকার দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে শুদ্ধাচার বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে দেখছে। সবগুলো প্রতিষ্ঠান নিজ নিজ উদ্যোগে শুদ্ধাচারের লক্ষ্য অর্জন করতে পারলে সমন্বিতভাবে এগিয়ে যাবে রাষ্ট্র। এক্ষেত্রে নোবিপ্রবি কর্তৃপক্ষও শুদ্ধাচারকেন্দ্রীক কর্মসূচিগুলো অগ্রাধিকার দিয়ে বাস্তবায়ন করছে। আশা করছি, আজকের এই প্রশিক্ষণ কর্মচারীদের দক্ষতা উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার পাশাপাশি শুদ্ধাচারের ক্ষেত্রেও তাদের উদ্বুদ্ধ করবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যের শুরুতেই প্রশিক্ষণার্থীদের শুভেচ্ছা জানান নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর।

এ সময় তিনি বলেন, চাকুরী ক্ষেত্রে শুদ্ধাচার বিষয়ক প্রশিক্ষণের কোন বিকল্প নেই। এ ধরনের প্রশিক্ষণ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক মান উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। আপনারা কে কোন পদে আছেন, এটা বড় বিষয় নয়। প্রত্যেকে যার যার জায়গায় কাজ করলে বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যাবে। আপনারা নিজ নিজ কাজে সততার পরিচয় দেবেন, এই প্রত্যাশা করছি।

নোবিপ্রবি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, আমাদের প্রত্যেকের ওপর অর্পিত দায়িত্বগুলো যথাযথভাবে পালন করছি কিনা তার ওপর আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রগতি নির্ভর করছে। কিছু দায়িত্ব রয়েছে যা আমাদের স্বপ্রণোদিত হয়ে করা উচিত, যেমন, নিজের কর্মস্থল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, অফিস ত্যাগের পূর্বে লাইট, ফ্যান, কম্পিউটার ইত্যাদি যথাযথভাবে বন্ধ করা ইত্যাদি। আপনাদের প্রত্যেকের পরিশ্রমের ফলে এগিয়ে যাবে নোবিপ্রবি।
প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, ইনস্টিটিউট, বিভাগ, দপ্তর ও আবাসিক হলের ৬৭ জন কর্মচারী অংশ নেন।

আরও পড়ুন

  • ক্যাম্পাস এর আরও খবর