• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ২৯ জানুয়ারি, ২০২৪

সিগারেট ক্রয়ের ৫০ টাকা না দেওয়ায় বন্ধুকে হত্যা, আদালতে স্বীকারোক্তি

উপজেলা প্রতিনিধি, বেগমগঞ্জ : বেগমগঞ্জে সিগারেট ক্রয়ের ৫০ টাকা না দেওয়ায় অটোরিকশা চালক বন্ধু মামুনুর রশিদকে (২০) ইটের আঘাতে হত্যা করেছে বলে আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন আসামি মো. সোহাগ (২৪)। রোববার (২৮ জানুয়ারি) বিকেলে জেলা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট মো. ইকবাল হোসাইন এ জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

সোহাগ বেগমগঞ্জ উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ দোয়ালিয়া গ্রামের বদিউর জামানের ছেলে। নিহত মামুন বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাকীপুর গ্রামের মো. কবিরের ছেলে।

রোববার (২৮ জানুয়ারি) বিকেলে বেগমগঞ্জ থানা প্রাঙ্গণে এক সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) বিজয়া সেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গত ২২ তারিখ থেকে অটোরিকশা চালক মামুন নিখোঁজ ছিল। শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাকীপুর গ্রামের একটি সুপারি বাগান থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজগঞ্জ ইউনিয়নের ক্লুলেস মামুন হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। আসামি আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। মূলত তাদের মধ্যে এক বছর ধরে বন্ধুত্ব। তারা এক সাথে নেশা করতো। হত্যাকাণ্ডের কারণ হলো ৫০ টাকার সিগারেট ক্রয়ের না দেওয়া। মামুন বলায় গাঁজা খেতে ৫০ টাকার সিগারেট আনেন সোহাগ। কিন্তু সেই টাকা না দেওয়ায় কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সোহাগ পাশে থাকা ইট দিয়ে মামুনের মাথায় আঘাত করেন। তারপর ইটটি পাশে থাকা পুকুরে ফেলে পালিয়ে যান।

বিজয়া সেন আরও বলেন, সুরতহাল করার সময় ভুক্তভোগীর মাথার পিছনের ডান পাশে, কপালের বাম পাশে জখমের চিহ্ন দেখা যায় এবং মৃতদেহ আংশিক পঁচা, পেট ফোলা ও মুখমন্ডল বিকৃত অবস্থায় দেখা যায়। আমরা আলামত হিসেবে মাথায় আঘাত করা ইটটি পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয় এবং ঘটনাস্থলের পাশে বাগান হতে ভুক্তভোগীর পরিহিত স্যান্ডেল উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়। আসামিকে চরজব্বর থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসময় তার কাছ থেকে এক পুরিয়া গাঁজা জব্দ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ফরিদুল আলম, থানার এসআই (নিরস্ত্র) ফিরোজ আহমেদ ও তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিরস্ত্র) আওলাদ হোসেন রিকাবদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

  • বেগমগঞ্জ এর আরও খবর