• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

প্রবাসী নিহতের ঘটনায় ৭ আসামি কারাগারে

উপজেলা প্রতিনিধি, সদর : সদর উপজেলার বাঁধেরহাট এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আবুধাবী প্রবাসী মো. সৌরভ হোসেন সাজ্জাদ (২০) নিহতের ঘটনায় সাত আসামিকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) বিকেলে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইনের নির্দেশে তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

কারাগারে প্রেরণকৃতরা হলেন, সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের রিয়াজ উদ্দিন (২৩), আরিফ উদ্দিন (২৫), আরমান রাহাত (২১), পারভেজ রাজু (২০), আবু নাছের (২৫), মো. ফারুক (৪২) ও রাকিব উদ্দিন (২৫)। গতকাল মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের তিন গ্রামে সিফাত গ্রুপ ও রিয়াদ গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছে। ওই বিরোধের জের ধরে সোমবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুর পৌনে ২টার দিকে সিফাত গ্রুপ ও রিয়াদ গ্রুপের মধ্যে স্থানীয় বাঁধেরহাট বাজারে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় আবুধাবী প্রবাসী সৌরভকে কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত সৌরভ হোসেন সাজ্জাদ উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের রামকৃঞ্চপুর গ্রামের আহাম্মদ মুন্সি বাড়ির মো. সবুজের ছেলে।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, নিহত সৌরভের বাবা মো. সবুজ একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযানের মাধ্যমে সাত আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নোয়াখালীর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের পরিদর্শক (কোর্ট ইন্সপেক্টর) মো. শাহ আলম কারাগারে প্রেরণের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দুপুরে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাত আসামিকে সোপর্দ করা হয়। তারপর আমলি আদালত-১ এর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইন তাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে বিকেলে তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

আরও পড়ুন

  • নোয়াখালী সদর এর আরও খবর