• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

কবিরহাটে বিজয়মেলার নামে অশ্লীল নৃত্যের জমজমাট আসর

উপজেলা প্রতিনিধি, কবিরহাট : প্রশাসনের নীরব ভূমিকায় কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের জগদানন্দ গ্রামে বিজয় মেলার নামে অশ্লীল নৃত্য আসর চলছে। অনুষ্ঠানের নামে সন্ধ্যার পর থেকেই শুরু হয় ‘ভ্যারাইটিজ শো’ নামক অশ্লীল নৃত্য।

স্থানীয় সাবেক ও বর্তমান দুই ইউপি চেয়ারম্যানের তত্ত্বাবধানে মেলায় এ অশ্লীলতা চলছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী অভিভাবক ও সচেতন নাগরিকদের।
অভিযুক্ত দুই ইউপি চেয়ারম্যান হলেন – ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন প্রকাশ কামাল কোম্পানি ও একই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান মুনাফ।

বুধবার রাতে সরেজমিনে ইউনিয়নের মুকবুল চৌধুরী হাট বিজয়মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, মেলায় রয়েছে ১৫-২০টি দোকান। মেলার মূল আর্কষণ অশ্লীল নগ্ন নৃত্যের আসর। রাত ১১টা থেকে উঠতি বয়সী স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী আর যুবকদের নগ্ন নৃত্য আসরে উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়। তবে নগ্ন নৃত্য মঞ্চে মোবাইলে ছবি ও ভিডিও চিত্র ধারণ কঠিনভাবে নিষিদ্ধ। মেলায় অশ্লীল নৃত্য করেন একাধিক কিশোরী, তরুণী ও যুবতী। তাদের দিকে টাকা ছুড়ছেন এক টাক মাথার লন্ডন প্রবাসী।

জানা গেছে, গত ২৫ জানুয়ারি থেকে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মুকবুল চৌধুরী হাট বিজয়মেলার অনুমোদন নেয় আয়োজক কমিটি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মেলায় যাত্রাপালার অনুমোদন নেওয়া হলেও অবলীলায় রাতের আঁধারে চলছে অশ্লীল নৃত্য আর মাদক কেনাবেচা।

অভিযোগ রয়েছে, গত বছর এ মেলায় রমরমা দেহ ব্যবসা চালানো হয়। পরে সরকারের একাধিক সংস্থা মেলা পরিদর্শন করে বেশ কিছু আপত্তিকর উপকরণ উদ্ধার করে মেলা বন্ধ করে দেন।

একাধিক সূত্র জানায়, ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামাল কোম্পানি ওই মেলার উদ্বোধন করেন।

এদিকে মেলায় এমন অসামাজিক কাণ্ডে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া বিঘ্নিতসহ উঠতি বয়সী যুব সমাজ রসাতলে যাওয়ার আশঙ্কায় এলাকার সুশীল সমাজ ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী জহুরুল হক চৌধুরী জহির বলেন, গত এক সপ্তাহ ধরে আমরা এ মেলায় চলতে থাকা অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ফেসবুকে লেখালেখি করে আসছি। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি আমলে নেয়নি।

মেলায় অশ্লীল নৃত্যের বিষয়ে জানতে চাইলে ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও মেলার তদারক আবদুল মান্নান মুনাফ অভিযোগ নাকচ করে দেন।
তিনি বলেন, অশ্লীল নৃত্য কি সেটা আমি বুঝি না। মেলার সব কিছু দেখাশোনা করছে বর্তমান চেয়ারম্যান। তার সঙ্গে কথা বলুন।

মেলায় অশ্লীল নৃত্য চলছে বলে স্বীকার করেন ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামাল কোম্পানি।

তিনি বলেন, এলাকার আমজনতা চায়, আমি কী করব? জনগণ চায় এটা। আমরা তো মানুষ নিয়ে বাস করতে হবে। তিনি উল্টো প্রশ্ন রাখেন, মানুষ ছাড়া কি বাস করতে পারবেন।

কবিরহাট থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন জানান, এ ধরনের অভিযোগ সত্য নয়।

গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ভিডিওচিত্র রয়েছে বলা হলে তিনি বলেন, মেলার আয়োজক কমিটি জেলা প্রশাসন থেকে অনুমতি নিয়েছে।

কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ সরওয়ার উদ্দীন বলেন, অভিযোগের সত্যতা পেলে মেলা বন্ধ করে দেওয়া হবে।

স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে মেলায় অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে বলা হলে তিনি বলেন, অনেকে ঢালাওভাবে অভিযোগ করতে পারেন। তবে এটা সত্য নয়।

আরও পড়ুন