• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

প্রধানমন্ত্রীত্বের সময় ভাগ করবেন নওয়াজ ও বিলাওয়াল

পাকিস্তানের জোট সরকার গঠন করতে নওয়াজ শরীফের পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) ও বিলওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) একমত হয়েছে। এমনকি, প্রধানমন্ত্রীর সময় সীমাও ভাগ করে নেবে দল দুটি। এ নিয়ে একটি ফর্মূলায় এগুচ্ছে তারা। দুই দল থেকে আড়াই বছর করে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা হবে। সূত্রের বরাতে সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছে জিও নিউজ।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় ও প্রাদেশিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণের তিন দিন পর গতকাল রোববার সবগুলো আসনের ফলাফল ঘোষণা করে দেশটির নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)। ঘোষিত ফলাফলে স্বতন্ত্ররা এগিয়ে থাকলেও দল হিসেবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে পিএমএল-এন। দল হিসেবে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে পিপিপি।

সূত্রের বরাতে জিও নিউজ বলছে, কেন্দ্রীয়ভাবে ও পাঞ্জাবে প্রদেশে জোট সরকার গঠনে গত রোববার পিএমএল-এন ও পিপিপির শীর্ষস্থানীয়দের বৈঠক হয়। সেখানে ফর্মূলাটি আসে।

২০১৩ সালে বেলুচিস্তানের প্রাদেশিক সরকার গঠনের সময় ন্যাশনাল পার্টির (এনপি) সঙ্গে জোট করে পিএমএল-এন। ওই সময় দুই মেয়াদে দু’দল থেকে মূখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছিল। আড়াই বছরের ক্ষমতা থাকার বিষয়টি সেখান থেকেই এসেছে।

রোববারের (১১ ফেব্রুয়ারি) বৈঠকটি হয় বিলওয়াল ভুট্টোর লাহোরের বাড়িতে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন পিপিপির পার্লামেন্টারিয়ান প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি, চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভুট্টো ও পিএমএল-এনের শেহবাজ শরীফ। এ সময় দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য দুপক্ষই জোট সরকার গঠনে একমত হয়েছে।

বৈঠকের পর দুই দলের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, একটি সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতির স্বার্থকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, উভয় দলের নেতৃবৃন্দ বিরাজমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এবং দেশের উন্নতির জন্য সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার অপরিহার্যতা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

সূত্র বলছে, বৈঠকে জোট সরকার গঠনে পিপিপিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আহ্বান জানায়। পিপিপি নেতাদের মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট (এমকিউএম) ও স্বতন্ত্রদের সঙ্গে ভালো যোগাযোগ রাখার বিষয়ে প্রশংসা করে পিএমএল-এনের নেতারা।

বৈঠকে পিএমএল-এনের নেতারা প্রধানমন্ত্রী পদ নিজেদের কাছে রাখার দাবি উত্থাপন করে। তবে, প্রধানমন্ত্রী পদের বিলওয়াল ভুট্টোর নাম আগে থেকেই দিয়ে আসছে আসিফ আলী জারদারি। সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে দুই দলের নেতারা আড়াই বছরের সম্ভাবনাকে খতিয়ে দেখেন।

আরও পড়ুন