• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৯ মার্চ, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১৯ মার্চ, ২০২৪

রাত হলেই ডাকাতিতে নামে তারা, অবশেষে কারাগারে 

উপজেলা প্রতিনিধি, বেগমগঞ্জ : রাত হলেই সঙ্গীদের নিয়ে দেশিয় আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ডাকাতিতে নামে রাসেল (২৬)। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১১ টি ডাকাতির মামলা আছে।  সোমবার (১৮ মার্চ) সন্ধ্যায় দুই সহযোগীসহ তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এর আগে রোববার (১৭ মার্চ) দিনগত রাতে চৌমুহীন পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আলীপুর গ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি পাইপগান, একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ধারালো ছোরা, একটি প্লাইয়ার্স, একটি ঘর ভাঙ্গার যন্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

কারাগারে প্রেরণকৃতরা হলেন, নোয়াখালীর সদর উপজেলার মাইজদী এলাকার মৃত চাঁদ মিয়ার ছেলে রাসেল, বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের গনিপুর গ্রামের মিলনের ছেলে ওমর ফারুক জীবন (৩০), একই উপজেলার মধুপুর গ্রামের শহিদ উল্যার ছেলে তাজুল ইসলাম কালু প্রকাশ সজীব ওরফে শরীফ (২৩)।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুদীপ্ত নাথ দীপ্ত অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ রাসেলসহ তিনজনকে আটক করেন। এসময় আরও ৪-৫জন পালিয়ে যান। আসামিদের মধ্যে আশপাশের থানায় রাসেলের বিরুদ্ধে ১১টি, ওমর ফারুক জীবনের বিরুদ্ধে পাঁচটি ও তাজুল ইসলাম কালুর বিরুদ্ধে তিনটি ডাকাতি-চুরিসহ অস্ত্র মামলা রয়েছে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম  বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 তিনি বলেন, ডাকাতির প্রস্তুতির সময় আগ্নেয়াস্ত্রসহ তাদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রাসেল পেশাদার ডাকাত। রাত হলেই সে আগ্নেয়াস্ত্রসহ সঙ্গীদের নিয়ে ডাকাতি করতে নামেন৷ দুই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে সোমবার বিকেলে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সন্ধ্যায় তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

আরও পড়ুন

  • বেগমগঞ্জ এর আরও খবর