• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৮ মার্চ, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ২৮ মার্চ, ২০২৪

নোয়াখালী ইউনিয়নে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু, বসতঘত, ভেড়া-গরু পুড়ে ছাই

উপজেলা প্রতিনিধি, সদর : সদর উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে মো. নূর ইসলাম ইস্রাফিল (৬০) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এসময় অগ্নিকাণ্ডে আরও তিন জন আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকালে উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম চর উরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে তিনটি বসতঘরসহ ৯ টি ভেড়া ও একটা গরু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

নিহত নূর ইসলাম ইস্রাফিল সদর উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম চর উরিয়া গ্রামের মৃত মো. হাবিবুল্লাহর ছেলে। আহতরা হলেন, নিহত নূর ইসলামের মো. সেলিম (৪৮), সেলিমের স্ত্রী মায়া বেগম (৩৫) ও আব্দুল কবিরের মেয়ে শেফালি বেগম (৪৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) ভোরে সেহেরি খেয়ে নামাজ পড়ে ঘুমিয়ে পড়েন নূর ইসলাম ও পরিবারের লোকজন। কিছুক্ষণ পর বিদ্যুতের আগুনে মূহুর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলেও কাঁচা সড়ক হওয়ায় গাড়ি প্রবেশ করতে পারেনি। এসময় চারজন অগ্নিদগ্ধ হয় এবং বসতবাড়ির টিনশেডের তিনটি ঘর, একটি গরু ও ৯টি ভেড়া মারা যায়। পরবর্তীতে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে এবং দগ্ধদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা ফজলে রাব্বি বলেন, মুহুর্তের মধ্যে আগুনে সব কিছু ছাই হয়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিসকে কল দিলেও রাস্তা না থাকায় গাড়ি প্রবেশ করতে পারেনি। স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ততক্ষণে সব পুড়ে শেষ হয়ে গেছে। তিনটা বসতঘর, একটি গরু ও নয়টি ভেড়া পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

নোয়াখালী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, অগ্নিদগ্ধ হয়ে নূর ইসলাম মারা যায়। তার মরদেহ নোয়াখালী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে রয়েছে। শেফালি বেগম ও মায়া বেগমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার প্রেরণ করা হয়েছে। সেলিম বর্তমানে নোয়াখালী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স নোয়াখালীর বক্তব্য নিতে দায়িত্বশীলদের একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

নোয়াখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাওলানা ইয়াসিন আরাফাত বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আমি খবর নিয়েছি। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক। পরিবারের প্রধানের এমন মৃত্যু এবং সম্পদের ছাই হয়ে যাওয়া সত্যিই দুঃখজনক। আমরা পরিষদের পক্ষ থেকে তাদের পাশে থাকবো।

আরও পড়ুন

  • নোয়াখালী সদর এর আরও খবর