• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৯ জুলাই, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ৯ জুলাই, ২০২৩

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে মেঘনা নদীতে নিখোঁজ যুবকের সন্ধান মেলেনি

উপজেলা প্রতিনিধি, সুবর্ণচর : সুবর্ণচরে বন্ধুদের সাথে মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে জোয়ারের পানিতে ভেসে যাওয়ার ২১ ঘন্টা পরেও নিখোঁজ যুবকের সন্ধান মেলেনি। এসময় তার সাথে থাকা অপর দুই বন্ধু শাহাব উদ্দিন ও মহিউদ্দিন মহিবকে স্থানীয় জেলেরা ঘটনাস্থলের তিন কিলোমিটার অদূরে নদীর পানি থেকে উদ্ধার করেছেন।

নিখোঁজ হওয়া যুবকের নাম আমির হোসেন(২৫)। তিনি উপজেলার চর জুবিলী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের আলী আহমদ চৌকিদারের ছেলে। তিনি নিজ এলাকার ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন।

ঘটনার ২১ ঘন্টা পেরিয়ে আজ রবিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন, কোস্টগার্ড ও নিখোঁজের স্বজনেরা তাঁর সন্ধান পায়নি। ঘটনাটি ঘটে শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের শিউলি একরাম বাজার সংলগ্ন বোয়ালখালী ঘাটে এই ঘটনা ঘটে।

আমির হোসনের বড় ভাই সলিম উল্যাহ জানান, বোয়ালখালী ঘাটের অদূরে উড়ির চর, জ্যাহিজ্জার চর, স্বর্ণদ্বীপসহ আশেপাশে সম্ভাব্য স্থানে ইঞ্জিন চালিত বোট নিয়ে খুঁজেছেন কিন্তু কোথাও তাঁর সন্ধান পায়নি। তিনি ছোট ভাইয়ের বাঁচায় আশা জাগিয়ে রেখেছেন। তিনি আরো বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন, কোস্টগার্ড যদি উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করেন তাহলে হয়তো তাঁর ছোট ভাইকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহি উদ্দিন চৌধুরী জানান, আমরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। নদীতে স্রোতে গতি বেশি থাকায় বোট নিয়ে খুঁজতে কিছুটা বিঘ্ন হচ্ছে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেল চারটায় ১০/১২ জন বন্ধু মিলে চর জুবলি থেকে শিউলি একরাম বাজার সংলগ্ন বোয়ালখালী ঘাটে মেঘনা নদীর পাড়ে যান আমির হোসেন। নদীতে তখন ভাটা থাকায় তারা তিন বন্ধু পায়ে হেঁটে নদীর পাড় থেকে প্রায় ১০০ মিটার দূরে যান। এমন সময় দুই দিক থেকে জোয়ার এলে তারা তীরে ফিরতে না পেরে নদীর পানিতে ভেসে যান। এ সময় স্থানীয় জেলেরা দুইজনকে জীবিত উদ্ধার করতে পারলেও আমির হোসেন নিখোঁজ হন।

আরও পড়ুন

  • সুবর্ণচর এর আরও খবর