• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৭ জুলাই, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ৭ জুলাই, ২০২৪

সুবর্ণচরে বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা

উপজেলা প্রতিনিধি, সুবর্ণচর: জেলার সুবর্ণচর উপজেলায় আব্দুল খালেক ওরফে খাজা মিয়া নামে এক বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তার বয়স আনুমানিক ৬৭ বছর। তবে পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা তাৎক্ষণিক হত্যাকা কোনো কারণ জানাতে পারেননি।

নিহত আব্দুল খালেক উপজেলার চরজব্বর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের চর রশিদ গ্রামের খালেক মিয়া বাড়ির মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি ৫ সন্তানের জনক ছিলেন।

রোববার (৭ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে নিহতের বাড়ির সামনে থেকে পুলিশ এ মরদেহ উদ্ধার করে। শনিবার দিবাগত গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটেছে ধারণা করছেন এলাকাবাসী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃদ্ধ আব্দুল খালেক এক সময় স্থানীয় বাজারের চা দোকানদার ছিল। স্ত্রী কমলা বেগম কাঞ্চনসহ নিজ বাড়িতে বসবাস করেন। গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে তিনি স্থানীয় কাঞ্চন বাজার থেকে এক প্রতিবেশীর সাথে বাড়ি ফিরেন। কিন্তু বাজার থেকে তিনি ঘরে ফিরে না আসায় রোববার সকালে তার স্ত্রী ফজর নামাজ পড়তে উঠে স্বামীকে খোঁজাখুজি শুরু করেন। একপর্যায়ে সকাল ৬টার দিকে নিজ বাড়ির সামনে স্বামীর গলা কাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন।

নিহতের মেজো ছেলে মো. ছিদ্দিক উল্যাহ বলেন, বাবা খুবই সহজ-সরল লোক ছিলেন। তার সাথে কারো বিরোধ ছিল না। কে বা কারা তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। এখন পর্যন্ত হত্যার কোনো কারণ তাদের জানা নেই।

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কাওসার আলম ভূঁইয়া বলেন, বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। তবে শরীর থেকে মাথা আলাদা হয়নি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এখনো নিহতের স্বজনেরা কোনো অভিযোগ করেনি। তবে হত্যার কারণ সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি। পুলিশ ক্লু-লেস এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে চেষ্টা চালাচ্ছে।

আরও পড়ুন