• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২ ডিসেম্বর, ২০২৩

সূবর্ণচরে গরুর খামার করে সাফল দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ মামুন

35-Best-Free-Wallpaper-to-Download.jpg

বিশেষ প্রতিবেদন : সুবর্ণচর উপজেলায় গরুর খামার দিয়ে সফল দুবাই প্রবাসী। অল্প সময়ে অদম্য পরিশ্রম আর সাহসিকতা নিয়ে দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ মামুন এখন একজন সফল খামারি। মামুনের স্থায়ী ঠিকানা সন্দীপের কালাপানিয়া ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড বানিয়ারহাট হলেও নিজের প্রবল ইচ্ছে থেকে নোয়াখালী সূবর্ণচর উপজেলার ৩নং চর ক্লার্ক ইউনিয়নের মধ্যম কেরামতপুর গ্রামে তার জেঠাতো ভাই আইয়ুব আলীর মাধ্যমে “আনোয়ারা নুর এগ্রো এন্ড ডেইরি” নামে একটি খামার শুরু করেন। গরুর খামার দিয়ে ইতিমধ্যে নিজেকে সফল খামারি ও ব্যবসায়ীর খাতায় নাম লিখেয়েছেন তিনি।

প্রত্যন্ত গ্রামীন জনপদে বসবাস করা মামুন দেশে কিছু একটা করার ইচ্ছা শক্তি থেকেও বিভিন্ন কারনে আর করা হয়নি। প্রবাসে গিয়ে শখের বসে সুবর্ণচর চর ক্লার্ক ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড মধ্যম কেরামতপুরে প্রথমে এক একর এলাকাজুড়ে ২০২০ সালে গড়ে তোলেন “আনোয়ারা নুর এগ্রো এন্ড ডেইরি” নামে স্বপ্নের পশু পালন খামার।

প্রথমে অস্ট্রেলিয়ান ফ্রিজিশিয়ান জাতের এবং দেশীয় কয়েকটি গাভী ক্রয় করে এক একরের মধ্যে খামারের কার্যক্রম শুরু করলেও বর্তমানে দেশী-বিদেশী জাতের দেড় শতাধিক গরু রয়েছে এই খামারে এবং বর্তমানে গরুর ঘাস চাষ সহ প্রায় ১২ একরের মধ্যে খামারের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

গরুর খামারের পাশাপাশি উন্নত জাতের ছাগল, বেড়াও রয়েছে আনোয়ারা নুর এগ্রো এন্ড ডেইরি ফার্মে। গরুর খামার টি পরিচালনায় বর্তমানে এখানে দায়িত্বে আছেন ২০ জন শ্রমিক। স্বল্প পরিসরের খামারটি শুরু করলেও দিনদিন এর পরিধি বেড়েই চলেছে। ৩০ টিরও বেশি দুধের গরু রয়েছে খামারে। যেগুলো থেকে দৈনিক ৪০০ কেজিরও বেশি দুধ পাচ্ছে পান বলে জানান মোহাম্মদ মামুন। এই খামারের মাধ্যমে তিনি একদিকে স্থানীয় এলাকায় আমিশের চাহিদা মেটাচ্ছেন আর অন্যদিকে ২০ জন মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিলেন মোহাম্মদ মামুন। খামার পরিচালনার পাশাপাশি এলাকার বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দান অনুদান দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বিভিন্ন সামাজিক ও মানবিক কাজের মাধ্যমেও দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ মামুন সবার পছন্দের মানুষে হিসেবে পরিণত হয়েছেন।

প্রতিবেশীরা বলেন, মামুন একজন সফল খামারি। শখ আর অদম্য ইচ্ছা শক্তি তাকে সফলতা এনে দিয়েছে। এলাকায় সফল খামারি হিসেবে মোহাম্মদ মামুন এখন সবার জন্য অনুকরণীয় বলেও জানান স্থানীয়রা। মামুন অত্যন্ত পরিশ্রমি ও খুবই বিচক্ষন। খামারের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে পুরো খামার এলাকা কে ৭০টিরও বেশি সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে সার্বক্ষণিক তদারকি করা হচ্ছে।

দুধের গরুর পাশাপাশি মাংসের জন্য বেশকিছু বড় জাতের গরু রয়েছে এই খামারে। রয়েছে ছোট বড় বিভিন্ন জাতের বিক্রি উপযোগী গরু। কেউ চাইলে সরাসরি খামারে গিয়ে দেখে যাচাই-বাছাই করে গরু গুলো কিনতে পারবেন।

খামারের প্রধান দায়িত্বে থাকা মোহাম্মদ আইয়ুব আলী বলেন, আমরা অত্যন্ত পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার মাধ্যমে আমাদের এই খামার পরিচালনা করে আসছি। এর জন্য সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রতিটি মানুষ সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

খামার পরিচালনায় সহকারী দায়িত্বে থাকা শাহজাহান এবং সিরাজ বলেন, অন্য আট-দশ টা খামারের চেয়ে আমাদের “আনোয়ারা নুর এগ্রো এন্ড ডেইরি” সম্পুর্ণ ব্যতিক্রম। কারন আমরা সার্বক্ষনিক সময়মত গরুর খবার, বিশেষ করে ৭ একর এলাকা জুড়ে চাষ করা কাঁচা ঘাস প্রধান খাদ্য হিসেবে রেখেছি। পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা সহ খামারের সকল বিষয় আমড়া আন্তরিকতার সাথে তদারকি করছি।

বর্তমানে দুবাই প্রবাসী মোহাম্মদ মামুনের এই সাফল্য দেখে এলাকার অনেক বেকার যুবক খামার ব্যবস্থাপনায় আত্মনির্ভরশীল হয়ে উঠতে চান।

আরও পড়ুন

  • সুবর্ণচর এর আরও খবর