• ঢাকা
  • বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেল আশ্রয়ণের বাসিন্দারা

উপজেলা প্রতিনিধি, সুবর্ণচর : সুবর্ণচরে আশ্রয়ণের বাসিন্দাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলার চরমহিউদ্দিন আশ্রয়ণ প্রকল্পে এসব কম্বল বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান।

তিনি বলেন ‘বাংলাদেশের কোন মানুষ ভূমিহীন থাকবেনা, বাংলাদেশের কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না’ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনার আলোকে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এমন উদ্যোগ সারা বিশ্বের কাছে নন্দিত হয়েছে। তাই প্রকল্পটি যেন সুচারু ভাবে টিকসই মানের নির্মাণ করা হয় তারজন্য আমরা সারাদেশের বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে এই ঘর নির্মাণ প্রকল্পটি পর্যবেক্ষণ করছি। সরকার সব সময় অসহায় মানুষের পক্ষে আছে। নোয়াখালীতে কেউই গৃহহীন থাকবেনা। আজ আপনারা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার পেলেন। আগামীতে সকল সুযোগ সুবিধা অব্যাহত থাকবে।

এ সময় জেলার জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মিল্টন রায়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আল আমিন সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সুবর্ণচর উপজেলার চরমহিউদ্দিন আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনে আসেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান। পরিদর্শনকালে তিনি নির্মাণ কাজের অগ্রগতি তদারকি করেন এবং আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসকারী লোকজনের খোঁজখবর নেন। পরিদর্শন শেষে তিনি বৃক্ষরোপণ ও প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আশ্রয়ণের বাসিন্দাদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

জেলার জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, চরমহিউদ্দিন আশ্রয়ণ প্রকল্পের ১৪৪ টি জরাজীর্ণ ব্যারাকের ১৪৪০ টি কক্ষের পরিবর্তে সেমিপাকা একক গৃহ প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৩২০ টি ঘরের নির্মাণকাজ সমাপ্ত হওয়ায় ব্যারাকে বসবাসকারীদের হস্তান্তর করা হয়েছে এবং ২০০টি ঘরের নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে। আমরা অতিদ্রুত বাকি ঘরগুলো বুঝিয়ে দিবো।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৯ আগস্ট (বুধবার) সকাল ১০ টায় গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালী যুক্ত হয়ে নোয়াখালীর ৪১৮ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর উপহার দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী নোয়াখালীর সদর, বেগমগঞ্জ, সোনাইমুড়ি, চাটখিল ও সেনবাগ উপজলাকে গৃহহীন ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করেন। জেলায় মোট ভূমিহীন পরিবার ছয় হাজার ২৭৮ জন। যার মধ্যে ৪টি পর্যায়ে তিন হাজার ৯৯০ টি পরিবারকে গৃহ নির্মাণ করে দিয়েছে প্রশাসন।

আরও পড়ুন

  • সুবর্ণচর এর আরও খবর