• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২০ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২০ ডিসেম্বর, ২০২৩

ভোট হলো সঠিকভাবে পথচলার জন্য জনগণের অধিকার ও সঠিক প্রয়োগ – কমরেড মহিউদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-৩ বেগমগঞ্জ আসনে সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম-এল) মনোনীত দলের কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য জেলা কমিটির সম্পাদক কমরেড মহিউদ্দিন (মহিম)। তিনি গণবান্ধব সংসদ, সরকার ও জনগণের গণতন্ত্র কায়েম সাম্রাজ্যবাদ, লুটেরা ধনিক শ্রেণির অমানবিক শাসন শোষণ লুণ্ঠন নিপীড়ন রুখতে, কালোটাকা, অর্থ পাচার ঘুষ, দুর্নীতি, দুর্বৃত্তায়ন নির্মূল করতে, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমাতে বেগমগঞ্জকে আধুনিক কৃষি ও শিল্প পল্লী গড়ে তুলতে চাকা মার্কায় ভোট চেয়েছেন।

জানা যায়, কমরেড মহিউদ্দিন (মহিম) ৭০ ও ৮০’র দশকের উত্তাল রাজনৈতিক সময়ে কাজিরহাট অঞ্চল, চৌমুহনী সরকারি এস.এ কলেজের রাজনীতি এবং অর্ধশতাব্দীরও বেশি সময় শ্রমিক, কৃষক, শ্রমজীবী, জনতার পাশে থেকে সাম্যবাদী রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন। ১৯৯৬ সালে অনুষ্ঠিত ৭ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালীর সেনবাগ আসনে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম-এল) এর পক্ষে-বাম গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট থেকে চেয়ার মার্কা প্রতীক নিয়ে তিনি নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন।

বেগমগঞ্জ উন্নতিকল্পে মহিউদ্দিন (মহিম) প্রস্তাবনা
১. আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ, বেগমগঞ্জ কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, চৌমুহনী সরকারি এস এ কলেজকে পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর ২. এম এ হাশেম কলেজে মাস্টার্স কোর্স চালু, জালাল উদ্দিন কলেজে অনার্স কোর্স চালু, চৌমুহনীতে যানজট নিরসনে চৌমুহনী- চৌরাস্তা পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মান ৩. বেগমগঞ্জে ভারি-মাঝারি শিল্পাঞ্চল স্থাপন, আধুনিক কৃষি ও শিল্প পল্লী গড়ে তোলা ৪. বৃহত্তর নোয়াখালীকে বিভাগে রূপান্তর ৫. ডেল্টা জুটমিল সহ দেশের পাট শিল্পকে আধুনিকীকরণ ৬.কৃষি ভিত্তিক শিল্প গড়ে তোলা। ৭.নোয়াখালীতে একটি সমুদ্র বন্দর নির্মানের জোর দাবী করছি।

মো. সাহাব উদ্দিন বলেন, একটি গণবান্ধব জাতীয় সংসদ গঠনের লক্ষ্যে সন্মানিত ভোটারদের ব্যক্তি স্বাধীনতা প্রধান্য দিয়ে, অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সংরক্ষিত সহ ৩৫০ আসনেই সৎ নিষ্ঠাবান সংস্কৃতি মানসম্পন্ন সত্যিকারের দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদ, যারা দেশের আইন প্রনয়নে ভূমিকা রাখতে সক্ষম, তারাই জয়যুক্ত হয়ে আসুক। তাই কমরেড মহিউদ্দিন (মহিম)-কে চাকা মার্কায় ভোট দিতে হবে।
আবুল হাসেম ভূইয়া নামের আরেক ব্যক্তি বলেন, আমরা আওয়াজ তুলতে চাই। পুঁজিবাদ, সাম্রাজ্যবাদ ধ্বংস হোক, নিপাত যাক, আগামীদিন হোক মানুষের, সমাজ রাষ্ট্র হোক সমতার- মানবতার, জয় হোক গণতন্ত্র সমাজতন্ত্র গণমানুষের। মহিউদ্দিন মহিম মানুষের জন্য কাজ করবেন। সমতার বিষয়ে লড়বেন।
সাইফুল ইসলাম তপন নামের একজন বলেন, কমরেড মহিউদ্দিন (মহিম) ভাই দেশের গণরাজনীতি, গণসাংস্কৃতি বিকাশে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর, পরীক্ষিত প্রগতিবাদী রাজনীতিবিদ, চলমান লুটপাটের সমাজ অপরাজনীতির বিরুদ্ধে উজানস্রোতে দাঁড়িয়ে থাকে গণমানুষের মুক্তির লক্ষ্যে তিনি স্বপ্ন দেখে এক নতুন সমাজ। মানুষকে ঘিরে যে স্বপ্ন, তা বাস্তবে পরিণত করতে মানুষকেই এগিয়ে আসতে হবে। তাই গণতন্ত্র সমাজতন্ত্রের লড়াই সংগ্রামে, মানুষের মুক্তির লক্ষ্যে কমরেড মহিউদ্দিন (মহিম)-কে চাকা মার্কায় ভোট দিন।

কমরেড মহিউদ্দিন মহিম বলেন, স্বাধীনতার পূর্ব এবং পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশে সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন, বিশেষ করে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ, লুটেরা ধনিক শ্রেণির অমানবিক শাসন, শোষণ, লুণ্ঠন, নিপীড়ন, অর্থ পাচার, দুর্নীতি, দুর্বৃত্তায়ন চলছে। বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে রাষ্ট্রীয় সম্পদ-অর্থ লুটপাটকারীদের স্বর্গরাজ্য, অন্যদিকে সাধারণ জনগণ রাষ্ট্রীয় সুযোগ, নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। একই সমাজ রাষ্ট্রে মানুষে মানুষে বাড়ছে দূরত্ব, তৈরী হচ্ছে শ্রেণিবৈষম্য, তৈরী হচ্ছে শ্রেণি শোষণের নব-নব কৌশল। সমাজ রাষ্ট্র রাজনীতির পশ্চাদপদ পিছিয়ে পড়া অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে, গরীব মেহনতী মানুষ ও শ্রমিক শ্রেণির পার্টি -বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম-এল) সহ সকল কমিউনিস্ট-বাম, প্রগতিশীল, অসাম্প্রদায়িক, দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদীরা মিলে শ্রমজীবী, জনতাকে নিয়ে বিকল্প শক্তি এবং আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। ভোট হলো সঠিকভাবে পথচলার জন্য জনগণের অধিকার ও সঠিক প্রয়োগ। তাই লুটেরাদের তান্ডবলীলা বন্ধে খেলা হবে ।

তিনি আরও বলেন, সকল মানুষের জন্য গণতান্ত্রিক ও সম্মানজনক বাচাঁর অধিকার কালো টাকা, অর্থ পাচার, ঘুষ দুর্নীতি দুর্বৃত্তায়ন লুণ্ঠন, নিপীড়ন মুক্ত বাংলাদেশ। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্য শ্রমিক, কৃষক, শ্রমজীবী মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে সম্পূর্ণ বিনা খরচে শিক্ষা, চিকিৎসা, ছিন্নমূল মানুষের বসতঘর ব্যবস্থা করতে। শ্রমিক কৃষি শ্রমিক, মেহনতি মানুষের ন্যায্য মজুরি। অবিলম্বে ভূমি সংস্কার ও ভূমিহীন ক্ষেতমজুর গরীব কৃষকদের মধ্যে খাস, উদ্বৃত্ত জমিন বিতরন। কৃষিপণ্যের ন্যায্য মূল্য নির্ধারণ শ্রমিক ক্ষেতমজুর গরীব কৃষক, নিম্নমধ্যবিত্তদের জন্য পূর্ণ রেশনিং ব্যাবস্থা চালু। অসহায় নারী শিশু বয়স্কদের রাষ্ট্রীয় পরিচর্যা ও সুরক্ষা। প্রবাসীদের যথাযথ মূল্যায়নের জন্য প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ। শিক্ষিত অশিক্ষিত বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে আমি প্রার্থী হয়েছি। আমি জয়ী হয়ে সবার দাবি পূরণ করতে চাই। তাই আগামী ৭ জানুয়ারি বেগমগঞ্জবাসীর কাছে চাকা মার্কায় ভোট চাই।

আরও পড়ুন