• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩

বেগমগঞ্জে নির্বাচনী সহিংসতায় সতন্ত্র প্রার্থীর কর্মি আহত ॥ থানায় মামলা

উপজেলা প্রতিনিধি, বেগমগঞ্জ : বেগমগঞ্জে নির্বাচনী সহিংসতায় সতন্ত্র প্রার্থীর কর্মির উপর হামলা। বেগমগঞ্জ উপজেলার ১নং আমান উল্যাপুর ইউনিয়নের আয়ুবপুর গ্রামের চৌকিদার বাড়ী সংলগ্ন রাস্তার উপর সতন্ত্র প্রার্থীর কর্মি আলা উদ্দিন (৫৩) তার বন্ধু শরিফ উদ্দীন বাবুর সাথে ব্যক্তিগত বিষয়ে আলাপ করছে। এ সময় আসামীরা ২টি হুন্ডা যোগে এসে বর্তমান সংসদ এর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের এ সতন্ত্র প্রার্থী মিনহাজ আহম্মদ জাবেদ এর নির্বাচনী কার্য্যক্রম করে বলে এলাকার সকল লোকের নিকট পরিচিত। আলা উদ্দীন একজন সৎ ও উন্নয়ন মুখী কর্মী হিসাবে অত্র এলাকার সকল শ্রেণী পেশার লোকের নিকট আলা উদ্দীনের গ্রহনযোগ্যতা রহিয়াছে।

এছাড়া এলাকার সাধারণ মানুষের নিকট থেকে জানাযায় বিগত ইউপি নির্বাচন থেকে সংসদ মনোনীত প্রার্থী আলা উদ্দিন (৫৩) কে বিভিন্ন ভাবে হুমকী ধমর্কী দিয়া আসতেছে। কেননা আলা উদ্দিন অসৎ ও অপরাজনৈতির প্রতিবাদ করার কারণে বিগত দশ বছর যাবৎ বর্তমান সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরণ উল্লেখিত এলাকার কোন উন্নয়ন ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কার্য্যক্রমে নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের উপেক্ষিত করে। তাই প্রতিবাদী আলা উদ্দিন সহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের দূর্দিনের কর্মীগণ সংক্ষুব্ধ ছিল। তাদেরকে সংগঠিত করে আলা উদ্দিন তাহার সুভাঙ্খীদের নিয়ে বর্তমান সংসদ এর বিকল্প প্রার্থীর কাজ করবে বলে সবাইকে আস্বস্থ করে আসছে। নির্বাচনের তফশীল ঘোষণার পর যখন জানতে পারলো যে বেগমগঞ্জের উন্নয়নের রূপকার, যে ব্যক্তি ক্ষমতায় না আসিয়াও এলাকার সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণে যে রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম করেছেন। সে সতন্ত্র প্রার্থী মিনহাজ আহমেদ জাবেদ প্রার্থী হয়েছে। এতে আলা উদ্দিন তাহার সুভাকাঙ্খী ও সৎ ন্যায় পরায়ণ এবং এলাকার উন্নয়ন বিশ্বাসী কর্মীদের সাথে নিয়ে মিনহাজ আহম্মদ জাবেদ এর পক্ষে কাজ শুরু করেন। এতে বর্তমান সংসদ সদস্য এর হাইব্রিড কর্মী ও অতীত বিএনপি জামাতের কর্মীদের সংগঠিত করে আওয়ামী লীগ এর দুর্দিনের কর্মীদের উপর হামলা করে।

এই প্রতিবেদক সরেজমিনে গেলে এলাকার সকল শ্রেণী পেশার লোকজন জানায় বর্তমান সংসদ এই এলাকার সুস্থ্য নির্বাচন হলে তিনি বিশাল ব্যবধানে হারবেন। এতে বর্তমান সংসদ এর ক্যাডার বাহিনী প্রায় পাগল হয়ে গেছে। তারই ধারা বাহিকতায় আলা উদ্দিনের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ভিকটিম আলা উদ্দীন আরো জানান, তিনি উক্ত ঘটনায় হামলাকারী ৭জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত নামা ৮/১০ জনকে বিবাদী করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার ধারা ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩০৭/৩৭৯/৪২৭/৫০৬ পেনাল কোড ১৮৬০ বে-আইনী জনতাবদ্ধ পথ রোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করিয়া জখম করতঃ চুরি ক্ষতিসাধন ও হুমকি প্রদান। চোরাই মূল্য – ৩৯ হাজার টাকা, ক্ষতির পরিমাণ ৪০ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন

  • . এর আরও খবর