• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ৩০ ডিসেম্বর, ২০২৩

গণসংযোগে কাদের মির্জা/নির্বাচন নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে নানা সংকট সৃষ্টি হচ্ছে

 

উপজেলা প্রতিনিধি, কোম্পানীগঞ্জ : নির্বাচন নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে নানা সমস্যা ও সংকট সৃষ্টি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই এবং বসুরহাট পৌরসভার মেয়র ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল কাদের মির্জা।
শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নে ওবায়দুল কাদেরের পক্ষে নৌকা প্রতীকের গণসংযোগের সময় তিনি এ মন্তব্য করেন।

কাদের মির্জা বলেন, এই নির্বাচন নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে নানা ও সমস্যা সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। তারপরও সংবিধান রক্ষার জন্য নির্বাচনের বিকল্প নেই। তাই আগামী ৭ জানুয়ারি নির্বাচন। আপনাদের কাছে অনুরোধ কেন্দ্রে যাবেন, ভোট দেবেন। যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দেবেন। একটা অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করার জন্য আমরা সকল প্রস্তুতি নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের উন্নয়ন বলে শেষ করা যাবে না। চতুর্দিকে যা দেখবেন সব আওয়ামী লীগের উন্নয়ন। অতীতে কেউ কিছু করেনি। রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট, স্কুল-কলেজ, মাদরাসা-মসজিদ এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে ওবায়দুল কাদের সাহেবের উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। ক্লোজারের কারণে এই এলাকার নদীভাঙন কমেছে। ৩ হাজার ৮৮৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ক্রসডেমের টেন্ডার কিছুদিনের মধ্যে হয়ে যাবে। তাহলে শুধু মুছাপুর নয় পুরো কোম্পানীগঞ্জ নদীভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পাবে। সব ওবায়দুল কাদের সাহেবের অবদান।

কাদের মির্জা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১১১টি ভাতা চালু করেছেন। এমন কেউ নেই যারা ভাতাভোগী না। এবার বয়স্ক মানুষ না পেয়ে বয়স্ক ভাতা ফেরত দিয়েছি। সামনে যদি বয়স হয় তাহলে আমরা ভাতার আওতায় আনব। বিএনপির মওদুদ আহমেদ এই এলাকায় কোনো উন্নয়ন করেননি।

জামায়াতে ইসলামীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, জামায়াতের নিবন্ধন নেই। আপনারা পেয়ারের পাকিস্তানে চলে যান। আপনাদের নিবন্ধন এবারও দেয়নি। দরকার হলে অন্য দল করেন। যা করেছেন তার জন্য তওবা করুন। ১৯৭১ সালে বাবার সামনে মায়ের ইজ্জত নষ্ট করেছেন। মায়ের সামনে মেয়ের ইজ্জত নষ্ট করেছেন। এগুলো রাজনীতি নয়।

তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে কাদের মির্জা বলেন, তারেক জিয়া হাওয়া ভবন বানিয়ে লুটপাট করেছে। খাম্বা দিয়েছে কিন্তু বিদ্যুৎ দেয় নাই। সে এখন লন্ডনে বসে আন্দোলনের ডাক দিচ্ছে, হরতাল-অবরোধ দিচ্ছে।

এ সময় মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী, সাবেক চেয়ারম্যান শাহিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আবদুল্লাহ আল মামুনসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, নোয়াখালী-৫ (কোম্পানীগঞ্জ-কবিরহাট) আসনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (নৌকা), ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের মোহাম্মদ শামসুদ্দোহা (চেয়ার), জাসদের মোহাম্মদ মকছুদের রহমান (মশাল), জাতীয় পার্টির খাজা তানভীর আহমেদ (লাঙ্গল) ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের শাকিল মাহমুদ চৌধুরী (ছড়ি) প্রতীক পেয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন।

এ আসনে মোট ভোটার চার লাখ চার হাজার ৯৭৭ জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ৯ হাজার ৬৯৩ জন ও নারী ভোটার এক লাখ ৯৫ হাজার ২৮৪ জন। ১৩২ কেন্দ্রের ৯০০টি ভোটকক্ষে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

আরও পড়ুন

  • . এর আরও খবর