• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১২ আগস্ট, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১২ আগস্ট, ২০২৩

চাঁদার দাবিতে কবিরহাটে হিন্দু পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা, আহত-২

উপজেলা প্রতিনিধি, কবিরহাট : কবিরহাটে চাদাঁ দিতে অস্বীকার করায় হিন্দু পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কিছু যুবকের বিরুদ্ধে। এসময় সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরত্বর আহত হয়েছেন মধু সুদন দত্ত (৭৮) ও তার পুত্র গণেশ দত্ত (৩১)।

অভিযুক্তরা হলেন, একই ইউনিয়নের পশ্চিম নুর সোনাপুর গ্রামের ধনু মিয়ার ছেলে মোতালেব (২৫) ও একই গ্রামের জহিরের ছেলে নবাব (২৪) সহ কয়েকজন অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসী।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ১০ আগস্ট বেলা ১১ টার সময় উপজেলার ১নং নরোত্তমপুর ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামে মধু খোনারের বাড়িতে মধু খোনার রুগি দেখার সময় পাশের এলাকার কিছু বখাটে ছেলে এসে তার কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে ৬ জন সন্ত্রাসী এলোপাতাড়ি ভাবে মধু খোনার ও তার ছেলের উপর আক্রমণ করে কিল ঘুষি ও কাঠ দিয়ে আঘাত করে তাদের বাপ ছেলেকে গুরুত্ব আহত করে। এসময় বাঁধা দিতে এসে উপস্থিত রোগীদের স্বজনরাও আহত হয়। পরে তাদের শোর-চিৎকারে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে কবিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন।

এলাকাবাসী জানান, ঘটনার সময় কিছু ছেলে দেখলাম তার রুগি দেখার কাচারি ঘরে এসে বসেন এর কিছুক্ষণ পরে দেখি শোর চিৎকার শুনা যায়। তখন আমরা গিয়ে দেখলাম তাদের বাবা ছেলেকে বেধড়ক মারধর করছে। পরে আমরা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কবিরহাট পাঠায়।

ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, বিগত ১২০ বছর ধরে তাদের পূর্ব পুরুষা মানুষকে সেবার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রকার খোনারি ও বনাজি চিকিৎসা দিয়ে আসছেন। কখনো এলাকাতে কোন প্রকার সমস্যা হয়নি। এই মধু খোনারের রোগী হয় বেশির ভাগ মুসলিমরা। সব সময় মুসলিমরা তাদের সহযোগিতা করে আসেন। কিন্তু ঘটনার দিন পাশের এলাকার কিছু সন্ত্রাসী ছেলে তার কাছে টাকা দাবি করেন এবং তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করলে সন্ত্রাসীরা তাদের উপর আক্রমণ চালান। এই ঘটনায় ভুক্তভোগী হিন্দু পরিবারের পক্ষ থেকে কবিরহাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (অভিযোগ) দাখিল করেন।

মুঠোফোনে জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম রফিক জানান, এঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে আহত মধু সুদন দত্ত বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগের আলোকে থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাজ করতেছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন

  • . এর আরও খবর