• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ২৩ জানুয়ারি, ২০২৪

মহিলা মাদ্রাসার বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ন ও মিথ্যা তথ্য প্রকাশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

উপজেলা প্রতিনিধি, সোনাইমুড়ী : মহিলা মাদ্ধসঢ়;রাসা, শিক্ষার্থী নিয়ে কুরুচিপূর্ন,ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা তথ্য দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তথাকথিত আলী হাসান ওসামা কর্তৃক বক্তব্য প্রকাশের প্রতিবাদে নোয়াখালী জেলা মহিলা মাদ্রাসার ঐক্য পরিষদ কর্তৃক সোনাইমুড়ী উপজেলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

২২ জানুয়ারি’২৪ সোমবার বেলা ১১টায় নোয়াখালী জেলা মহিলা মাদ্রাসার ঐক্য পরিষদের সভাপতি মুফতি ইব্রাহিম,সহ-সভাপতি,মুফতি হাবিব উল্যা কামাল,হাফেজ মাওলানা মমিনুর রহমান, মাওলানা আাব্দুল গাফফার,সাধারণ সম্পাদক মুফতি ফয়েজ মাহমুদ সহ অন্যান্য ওলামায়ে কেরাম তাদের লিখিত ও মৌখিক বক্তব্য বলেন, ১৯ জানুয়ারি আলী হাসান ওসামা নামীয় জনৈক তথাকথিত মৌলবী মহিলা মাদরাসার পরিচালক,শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রীদের নিয়ে কুরুচিপূর্ন, ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা তথ্য সম্বলিত বক্তব্য প্রদান করে।

যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারে দেশব্যাপি নিন্দার ঝড় উঠে। বক্তারা আরো বলেন, এক সময় বাংলাদেশে মহিলা মাদরাসা ছিল না। নারী সমাজকে ইসলামিক জ্ঞান চর্চা ও শিক্ষার তেমন কোন মাধ্যম ছিল না। এই শূন্যতাকেই অনুভব করে দেশ বরণ্য আলেমগনের পরামর্শে ও তত্বাবধানে মহিলা মাদরাসার শুভ সুচনা হয়। যার ফলশ্রুতিতে সারা বাংলাদেশে প্রতিটি জেলা-উপজেলায় অসংখ্য মহিলা মাদ্রাসার সুনামের সহিত ছাত্রীদেরকে দ্বীনি শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলছে।হাজারো মাদ্ধসঢ়;রাসার মধ্যে হয়তো কোন এক মাদ্রাসার পরিচালনায় ভুল থাকতে পারে!এই জন্য ঢালাও ভাবে সকল মহিলা মাদ্রাসারকে নিয়ে এমন বাজে, অশালীন, কুরুচিপূর্ন বক্তব্য কাম্য নয়।

যা মহিলা মাদ্রাসার ও দ্বীনি শিক্ষা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র মাত্র।দ্বীনি শিক্ষা ও প্রতিষ্ঠান ধ্বংসে যুগে যুগে এরুপ ইসলামি লেফাজে বহু ব্যক্তিই এমন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছিল। কিন্তু তারা সফল হয় নি বরং ধ্বংস হয়েছে।

বক্তাগন আরো বলেন,আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আলী হাসান ওসামা তওবা করে তার এমন কুরুচিপূর্ন বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে দেশব্যাপী ওলামা সাহেবগন কঠোর আন্দোলন সহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।

আরও পড়ুন

  • সোনাইমুড়ী এর আরও খবর