• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২৩

সেনবাগের দারুল কুরআন ইসলামীয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের বিদায়

উপজেলা প্রতিনিধি, সেনবাগ : সেনবাগ উপজেলার ৫নং অর্জুনতলা ইউনিয়নের দড়ি গোরকাটা গ্রামের হাজী বাড়ির বায়তুল মামুর জামে মসজিদের খতিব ও তালিমুল কোরআন মাদ্রাসার মুহতামিম হযরত মাওলানা রহমতুল্লাহ মাসুম একই প্রতিষ্ঠানে টানা ১২ বছর কর্মরত ছিলেন, দীর্ঘ ১২বছর কর্মরত থেকে ঝড়াজির্ন দুটি প্রতিষ্ঠানকে অবকাঠামো উন্নয়ন করে নিজ হাতে গড়েছেন। আপন করে নিয়েছেন প্রতিষ্ঠান ও প্রতিষ্ঠানের আশ পাশের লোকজনদেরকে।

হঠাৎ তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে- নিজের হাতে গড়া প্রিয় প্রতিষ্ঠানকে বিদায় জানিয়ে নাড়ীর টানে তিনি তার নিজ এলাকায় ফিরে যাবেন।

এই সিদ্ধান্ত টি মসজিদের ঘোষণা দেওয়া পর এলাকাবাসী বিষয়টি মেনে নিতে পারেন নি।

নাড়ীর টান বলে কথা!! কোন কিছু তে আটককনো গেলো না হুজুর কে।
অবশেষে মসজিদের মুসল্লী ও গ্রামের যুব সমাজের উদ্যোগে হুজুরকে স্বসম্মানে বিদায় জানানো জন্য শুক্রবার বিকেলে মসজিদে এক বিদায় সংবর্ধনা, দোয়া আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় ।

অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেনবাগ পৌরসভার ঐতিহ্যবাহী জামিয়া ইব্রাহীম ইসলামীয়া মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা রহিম উল্যা বশরী। তিনি গুরুত্বপূর্ণ অলোচনা পেশ করেন এবং দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- মাওলানা হাফেজ আহমেদ, বিশিষ্ট সমাজসেবক আবদুর রহিম, জামাল উদ্দিন ও শাহআলম।

অনুষ্ঠানে খুশি মনে বিদায়ী অতিথি হযরত মাওলানা রহমতুল্লাহ মাসুম সাহেবকে মসজিদ ও মাদ্রাসার পক্ষ থেকে নগদ ৫০ হাজার এবং এলাকার যুব সমাজের পক্ষে ৪৬ হাজার টাকা তুলে দেন।

বিদায় বেলায় মসজিদের মুসল্লীরা আবেগ আফ্রুত হয়ে হুজুরকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

আরও পড়ুন

  • সেনবাগ এর আরও খবর